আর্টিকেল লিখে আয় | আর্টিকেল লিখে ইনকাম মাসে $১০০০ ডলার

হাই! দর্শক কেমন আছেন আপনারা। আজ আমি আপনাদের মাঝে উপস্থাপন করতে যাচ্ছি, কি ভাবে বাংলা আর্টিকেল লিখে প্রতি মাসে মোটা অঙ্কের টাকা আয় করবেন। 

আপনারা হইতো ভাবছেন এটা কি সঠিক নাকি? আমি বলবো হ্যাঁ সঠিক। 

কারণ আমাদের পৃথিবীতে বড় সার্চ ইঞ্জিন গুগল যা পৃথিবীর অনেক দেশের মানুষ এখান থেকে প্রতি মাসে হাজার হাজার ডলার আয় করেন।

আমাদের এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার জন্য স্বাগতম। আমাদের এই সাইটের মাধ্যমে শিখতে পারবেন বাংলা আর্টিকেল লিখে ঘরে বসে আয় করার সহজ পদ্ধতি সমূহ : বিস্তারিত জানতে নিচের অংশ দেখুন...

কি ভাবে আর্টিকেল লিখে আয় করবেন?

আপনি যদি কম্পিউটারে বাংলা টাইপিং করতে পারবেন এটি আপনার জন্য (+) পয়েন্ট। 

কারণ টাইপিং না জানলে আপনি আর্টিকেল লিখতে পারবেন না। আপনাকে অবশ্যই টাইপিং জানতে হবে।

বাংলা ভাষায় কম্পিউটার শিখুন বাংলা টাইপিং সহ ফ্রিতে ক্লিক করুন

আপনার যদি টাইপিং শেখা থাকে তাহলে কোন সমস্যা হবে না। আপনি ঘরে বসে প্রতি মাসে ডলার ইনকাম করতে পারবেন। 

যেমন : বাংলাদেশে অনেক ধরণের ওয়েবসাইট রয়েছে সে গুলোতে আপনি আপনার আর্টিকেল লিখে আয় করতে পারবেন। 

এটি একটি সহজ মাধ্যম। আপনারা ফেসবুকে যে ভাবে পোষ্ট করেন ঠিক সে ভাবেই পোষ্ট করতে পারবেন।

আপনার বেশি বেশি গুগল রিচার্জ করতে হবে। আপনি যে বিষয়ে আর্টিকেল লিখবেন সে বিষয়ে ভালো ভাবে রিচার্জ করতে হবে প্রতি দিন ১০-২০ টি ওয়েবসাইট। 

সেগুলো থেকে ধারণা নিয়ে আপনার ভালো মানের আর্টিকেল লিখতে হবে।

কোয়ালিটি সম্পন্ন আর্টিকেল বিক্রয় : 

আপনি মূল্যবান কিছু আর্টিকেল অন্যের কাছে বিক্রয় করতে পারবেন টাকার বিনিময়ে। 

কি ভাবে বিক্রয় করবেন ভাবেছন তো? চিন্ত নেই আপনার আর্টিকেল যদি মানসম্মত হয়। 

তাহলে অনেক ওয়েবসাইটের মালিক রয়েছে তারা অন্যের আর্টিকেল ক্রয় করে নিজের ওয়েবসাইটে প্রেরণ করে।

আপনার উচ্চ স্তরের আর্টিকেল হলে দাম পাবেন প্রায় ১০০০/- থেকে ৩০০০/- টাকা প্রতি দিন। কোন খরচ ছাড়াই ঘরে বসে বাংলা আর্টিকেল লিখে আয়।

অনলাইন রিচার্জ করবেন যে ভাবে?

আপনি যে বিষয়ে আর্টেকেল লিখবেন সে বিষয়ে ভালো ধারণা ধাকতে হবে। 

যেমন: আপনি যদি চাকরির বিষয়ে আর্টিকেল লিখেন তাহলে চাকরির বিস্তারিত তথ্য ভালো করে রিচার্জ করে মুল তথ্য সম্পর্কে বিস্তারিত সাজিয়ে গুছিয়ে লিখবেন।

আপনি যদি শিক্ষা বিষয়ে আর্টিকেল লিখেন তাহলে শিক্ষার তথ্য ভালো করে রিচার্জ করে মুল তথ্য সম্পর্কে বিস্তারিত সাজিয়ে গুছিয়ে লিখবেন।

আপনি যদি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় নোটিশ বিষয়ে আর্টিকেল লিখেন। তাহলে সঠিক তথ্য ভালো করে রিচার্জ করে মুল তথ্য সম্পর্কে বিস্তারিত সাজিয়ে গুছিয়ে লিখবেন।

আপনি যদি অনলাইন বিষয়ে আর্টিকেল লিখেন তাহলে সঠিক তথ্য ভালো করে রিচার্জ করে মুল তথ্য সম্পর্কে বিস্তারিত সাজিয়ে গুছিয়ে লিখবেন।

আর্টিকেল কোথায় লিখবেন ভাবছেন?

আর্টিকেল লিখার জন্য প্রথমে আপনাকে একটি ব্লগার বা ওয়ার্ড পেজ খোলতে হবে। 

আপনার যদি সামর্থ্য না থাকে তাহলে আপনি টাকা ব্যয় করা ছাড়াই ব্লগ তৈরী করতে পারবেন।

আমাদের সার্চ ইঞ্জিন গুগল ফ্রিতে একটি ব্লগ দিয়েছেন তা হলো ব্লগার। এটির মধ্যে একাউন্ট খোলতে কোন অর্থ প্রয়োজন হয় না। 

এটি কে বলা হয় ব্লগার ওয়েবসাইট। আর ওয়ার্ড পেজ একাউন্ট খোলার জন্য অর্থের প্রয়োজন আছে। যেমন : ডুমেইন, হোস্টিং, থিম আরো অন্যান্য।

কি ভাবে ব্লগার একাউন্ট খোলবেন?

পৃথিবীর অন্যতম একটি ফ্রি সাইট হলো ব্লগার যা কোন অর্থের প্রয়োজন হয় না। 

তবে হ্যাঁ এখানে একটি সমস্যা আছে কিছু টাকা লাগবে আপনার সাইট মানুষের কাছে পরিচিত হওয়ার জন্য সেটি হলো ডুমেইন। 

ব্লগারে শুধু টাকা দিয়ে ডুমেইন কিনতে হয়। যার বাংলাদেশি দাম ৮০০/- থেকে ১০০০/- টাকার মধ্যে লাগতে পারে।

ডুমেইন ক্রয় করার পদ্ধতি : 

ব্লগারের জন্য একটি ডুমেইন অবশ্যই গুরুত্বপূণ। এটি হলো ওয়েবসাইটের পরিচিত করার জন্য একটি মাধ্যম। 

আপনার ওয়েবসাইট যত মানুষ চিনবে তত আপনার লাভ। কারণ একটি ওয়েবসাইটের প্রাণ হলো ভিজিটর। 

ভিজিটর না থাকলে ওয়েবসাইটের কোন দাম নেই। যেভাবে ডুমেইন ক্রয় করবেন।

কি ভাবে ওয়েবসাইটে ভিজিটর নিয়ে আসবেন?

ভিজিটর নিয়ে আসার অনেক উপায় রয়েছে যা আপনাকে ভালো ভাবে এই পোষ্টি পড়তে হবে।

শুধু ডুমেইন দিয়ে ভিজিটর নিয়ে আসা যাবে না।চলুন এখন বিস্তারিত আলোচনা করা যাক যে কি ভাবে ভিজিটর নিয়ে আসা যায়।

আরো শিখতে এখানে ক্লিক করুন

প্রথমত, আপনার ওয়েবসাইটের প্রতি খেয়াল রাখতে হবে যে, কোন প্রকার অন্যের ওয়েবসাইট থেকে লেখা কপি করা যাবে না। 

কপি করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ। কপি করলে আপনার ওয়েবসাইট নষ্ট হয়ে যাবে। 

গুগল আপনাকে সার্পোট করবে না।  আপনার ওয়েবসাইট গুগল থেকে বাতিল করে দিবে। 

তাই আপনাকে গুগলে ভালো ভাবে মনোযোগ সহকারে প্রতিনিয়োত রিচার্জ করতে হবে ধর্য্য ধরে।

ওয়েবসাইটে আর্টিকেল লিখার জন্য টাইপিং অভিজ্ঞতা থাকতে হবে এবং প্রচুর সময় ব্যয় করতে হবে। আপনি যদি ধর্য্য ধরে রিচার্জ করতে পারবেন সফলতা হবেই। 

অবশ্যই ভালো মানের আর্টিকেল লিখতে হবে এবং যে বিষয়ে আর্টিকেল লিখবে সে বিষয়ের প্রতি দৃষ্টি দিয়ে সাজিয়ে গুছিয়ে আর্টিকেল লিখতে হবে।

প্রতিটি পোষ্টে কমপক্ষে ১০০০ টি থেকে ১৫০০ টি আর্টিকেল থাকতে হবে। 

সর্ব নিম্ন ২৫০ টি। আপনার পোষ্টে যত আর্টিকেল বেশি থাকতে ভিজিটর বাড়বে এবং গুগল আপনাকে সার্চ ইঞ্জিনের প্রথম পেজে জায়গা দিবে। 

গুগলের প্রথম পেজে থাকা মানে অর্থ উপার্জন।

২য়ত, আপনার ওয়েবসাইটে ভালো মানের থিম কাস্টমাইজ করতে হবে। 

ফ্রি থিম ডাউনলো করুন। ওয়েবসাইটে থিম ব্যবহার করলে আপনার পেজে ভিজিটর বাড়তে থাকবে। 

মানুষ সুন্দরের পুজারি। তাই উক্ত থিম ডাউনলোড করে সাইটে সেট করতে হবে।

৩য়ত, থিম ডাউনলোড করার পর আপনাকে থিমের কিছু বার রয়েছে সেগুলো কাস্টমাইজ করতে হবে। 

থিমের উপরে মেনুবার সাজাতে হবে আপনি যে বিষয় গুলোতে পোষ্ট করবেন। 

যেমন : হতে পারে চাকুরির খবর, সরকরী চাকরি, বেসরকারী চাকরি, এনজিও চাকরি, ব্যাংক চাকরি, ডিফেন্স চাকরি, স্কুল, কলেজ, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় নোটিশ, 

রেজাল্ট, রুটিন, ভর্তি বিজ্ঞপ্তি, ফরম ফিলাপ, গেম, সাজেশন, খেলা ধুলা, দেশের খবর, স্বাস্থ্য, কৃষি, প্রযুক্ত, ইন্টারনেট-অনলাইন ইত্যাদি।

যে সকল বিষয় নিয়ে কাজ করবেন সে ভাবে মেনু বার কাস্টমাইজ করুন। 

মেনু বারে কম পক্ষে ৫-৮ টি মেনু সেট করতে হবে তাহলে গুগলে রেংক হতে সহায়তা করবে এবং দেখতেও ভালো দেখাবে।

৪র্থত, বেশি বেশি ভিজিটর নিয়ে আসতে চাইলে নিয়মিত ওয়েবসাইটে আর্টিকেল পাবলিষ্ট করতে হবে। 

নিয়মিত মানে এই  এই নই যে, প্রতি দিন কাজ করতে হবে। আপনাকে দিন নির্ধারণ করে নিতে হবে যে কবে কবে পোষ্ট করবেন।

আপনি যদি চান প্রতি দিন হ্যাঁ এটাই ভালো।

আপনি যদি প্রতি দিন একটি করে আর্টিকেল লিখতে পারবেন আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর অভাব থাকবে না। আপনি যদি চান যে, প্রতি দিন করবেন না তবুও হবে। 

যেমন: আপনি যদি ০২ দিন পর পর, এক সপ্তাহ পর পর বা এক মাস পর পর আর্টিকেল লিখবেন তবুও হবে সমস্যা নেই। 

নিয়মিত হতে হবে নিয়ম ভাবে পোষ্ট করতে হবে। যেমন আপনি এক দিন সময় পেলেন সেদিন ৫-১০ টি পোষ্ট করলেন এটি করলে হবে না। 

এতে আপনার ভিজিটরগণ বিরক্ত হয়ে আপনার সাইটে আসবে না।

তাই প্রতি দিন, সপ্তাহে বা মাসে একটি করে পোষ্ট করবেন। এতে ভিজিটরগণ জানতে পারবে আপনি নিয়মিত ভাবে পোস্ট করেন। 

এতে সঠিক সময়ে আপনার সাইটে নিয়মিত ভিজিটর আসবে।

নতুন সব অনলাইন আয়ের মাধ্যম এখনে পাবেন ক্লিক করুন

ওয়েবসাইট এডসেন্স একাউন্ট :

বর্তমান যুগে এ্যাডসেন্স হলো সোনার হরিণ। এ্যাডসেন্স পাওয়ার জন্য দিনের পর দিন ঘাটতে হয়। 

ওয়েবসাইটে এ্যাডসেন্স এপরুপ হলে আর চিন্তা নেই। প্রতিদিন ইনকাম আসবেই কম হউক বেশি হউক।

ওয়েবসাইটে এ্যাডসেন্স পাওয়ার জন্য আবেদন করতে হয়। 

আবেদন কার জন্য আপনার ওয়েবসাইটে ভালো মানের কোয়ালিটি সম্পন্ন আর্টিকেল থাকতে হবে এবং ৩০-৫০ টি পোষ্ট থাকতে হবে কপিং রাইটিং ছাড়া।

আবেদন করার পর ২-৩ দিন সময় নিবে এপরুপ হতে। 

এ্যাডসেন্স এপরুপ হলে আপনার ই-মেইল এ একটি চিঠি পাঠাবে এ্যাডসেন্স টিম। 

সেখানে লেখা থাকবে আপনার আবেদনটি সফল হয়েছে। আপনি আপনার ওয়েবসাইটে এ্যাডসেন্স এড কাস্টমাইজ করুন।

এ্যাডসেন্স এড কাস্টমাইজ :

এ্যাডসেন্স এ এড মিনুয়ালি বা অটো এড কাসটমাইজ করা যায়। 

অটোর চেয়ে মিনুয়ালি এড কাস্টমাইজ করা উত্তম। 

কারণ অটো এড ব্যবহার করলে যে কোন সময় আপনার সাইট এড নষ্ট হয়ে যেতে পারে। 

এড কাস্টমাইজ সম্পন্ন হলে ভিজিটর প্রতিনিয়ত প্রবেশ করলে আপনার ইনকাম হবে।

এ্যাডসেন্স এড থেকে আয় হবে কি ভাবে?

আপনার ওয়েবসাইটে এড সু করলে ভিজিটর যে এড এ ক্লিক করবে সে অনুযায়ী আপনার ডলার আসবে। 

সিপিসি যাকে বলা হয় এড ক্লিক এর মূল। 

যেমন: একটি এড এ ক্লিক করলে আপনাকে কত সেন্ড দিবে গুগল। 

সেটা নির্ধারণ করে সিপিসি। ভালো মানের ওয়েবসাইট গুলোতে প্রতি এড এ এক ক্লিক সিপিসি থাকে $০.২০ বা আরো বেশি। 

সর্ব নিম্ন সিপিসি থাকে $০.০১। $১০০ সেন্ড মানে $১ ডলার। $১ ডলার বাংলাদেশি ৮৫/- টাকা।

এ্যাডসেন্স চিঠি প্রেরণ : 

আপনার এ্যাডসেন্স একাউন্টে যখন $১০ ডলার এ রুপান্তরিত হবে তখন আপনার কাঙ্খিত এ্যাডসেন্স টিম আপনার নিজ ঠিকানায় এ্যাডসেন্স কোড এর একটি চিঠি প্রেরণ করবে।

উক্ত কোড টি এ্যাডসেন্স একাউন্টে স্থাপন করতে হবে। তার পর আপনি যে ব্যাংকে টাকা রাখবেন সেই ব্যাংকের একাউন্ট নম্বর যুক্ত করতে হবে। 

যে কোন ব্যাংকে একাউন্ট খোলা থাকলেই হবে। মোবাইলে একটি সুবিধা রয়েছে যা রকেট একাউন্ট এটি হলেও চলবে।

পরিশেষেঃ 

আপনার কোয়ালিটি সম্পন্ন আর্টিকেল গুগল অনেক গুরুত্ব দেবে। উক্ত নিয়ম অনুসারে যদি আর্টিকেল লিখতে পারেন তাহলে প্রতি মাসে $১০০০ ডলার ইনকাম করতে পারবেন। 

আশি আশা করি আপনি আর্টিকেল লিখার বিষয়ে বুঝেছেন। আপনার যদি কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে নিচে কমেন্ট বক্সে মতামত জানান। 

আর্টিকেল লিখে আয় | আর্টিকেল লিখে ইনকাম মাসে $১০০০ ডলার  আর্টিকেল লিখে আয় | আর্টিকেল লিখে ইনকাম মাসে $১০০০ ডলার  আর্টিকেল লিখে আয় | আর্টিকেল লিখে ইনকাম মাসে $১০০০ ডলার  আর্টিকেল লিখে আয় | আর্টিকেল লিখে ইনকাম মাসে $১০০০ ডলার  আর্টিকেল লিখে আয় | আর্টিকেল লিখে ইনকাম মাসে $১০০০ ডলার  

আমাদের পেজে থেকে ধর্য্য সহকারে থাকার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। সাথেই থাকুন আর পোষ্টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করুন।  

Post a Comment

1 Comments

  1. বাংলা ও ইংরেজি টাইপিং করে দৈনিক ৩০ থেকে ৪০ মিনিট কাজ করে ৫০০-৮০০ টাকা ইনকাম করতে চান?
    যে যে বিষয়ে আপনার অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।।
    ১// আর্টিকেল লেখার অভিজ্ঞতা থাকতে হবে এটা অবশ্যই থাকতে হবে।
    ২// কম্পিউটার অথবা স্মার্টফোন থাকতে হবে।

    শেষ কথা আপনি প্রথমে এই ওয়েবসাইটে একাউন্ট করবেন।
    ১// কিভাবে আপনাকে একাউন্ট করতে হবে দেখে নিন = https://cutt.ly/TDWdJF4
    ২// লিঙ্ক ওপেন করুন এবং রেজিস্টার করুন = https://cutt.ly/FDWdpWA

    তারপর নিচের লিঙ্ক থেকে সকল ইনফরমেশন জেনে নিবেন।

    ৩// বিস্তারিত জানতে এই লিংকে ক্লিক করুন = https://cutt.ly/cDWsfCl
    ৪// আর্টিকেল লেখার নিয়মাবলী জানতে ক্লিক করুন = https://cutt.ly/mDWgpa9

    TechTop24 ওয়েবসাইটে কিভাবে কাজ করবেন।

    ৫// এই ভিডিও দেখে কাজ শিখুন https://youtu.be/JS_rSGoh01c

    তাই আজই কাজ শুরু করুন আর ইনকাম করুন ।। ধন্যবাদ সাথেই থাকুন ।।

    ReplyDelete